image

আজ, শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

এক রাতে ছেলে, আরেক রাতে বাপ আসে: সৌদিতে নির্যাতিতার আকুতি (অডিও) 

শীর্ষ নিউজ’র সৌজন্যে    |    ১৭:৪৬, আগস্ট ১৯, ২০১৮

image

ছবি-প্রতীকি

ভাই আমাকে বাঁচান। আমাকে নিয়ে যান। না হলে আমি মরে যাবো। একরাতে ছেলে আসে, আর এক রাতে বাপ আসে। আমি আর থাকতে পারছি না। আমার ঠ্যাং বেয়ে রক্ত পড়ছে। আমাকে বাঁচান ভাই, আমাকে বাঁচান। সৌদি আরবে গৃহকর্মে যাওয়া এক নারী গতকাল মোবাইলে এভাবেই তার দুর্দশার কথা তুলে ধরে দেশে ফেরার আকুতি জানান। 

https://youtu.be/So2KIuj_y2s

ব্রাকের মাইগ্রেশন প্রোগামের মিডিয়া শাখার এক কর্মকর্তার সঙ্গে কথপোকথনে তিনি তার এই দুদর্শার কথা তুলে ধরেন। ওই নারী জানান, তিনি ৪ মাস আগে সেদেশে গেছেন। দেশটির আল বাহার এলাকার একটি বাড়িতে গৃহকর্মীর কাজ দেয়া হয়েছে তাকে। একমাস সেখানে ভালোই ছিলেন। কিন্তু এরপর থেকেই তার ওপর শুরু হয়েছে নির্যাতন। 

কাঁদতে কাঁদতে হতভাগা এই নারী বলেন, আপনি আমার আপন ভাই, আমাকে বাঁচান, রাত্রিরি... । এক রাত্রিরি ছেলে আসে, আরেক রাত্রিরি বাবা আসে। আমার জানডা বোরোয় যাচ্ছে। ‘ওই জায়গায়’ হালিস বেরোয় গেছে। জানডা বেরোয় যাচ্ছে। থাকতি পারতিছি নে ভাই। আমারে একটু বাঁচান ভাই। আমারে একটু নিয়ে যান ভাই। (কাঁদতে কাঁদতে) ওরে ভাই, আমি মরে গিলাম ভাই। কতদিন সেখানে গেছেন জিজ্ঞেস করলে ওই নারী জানান, চার মাস হলো গেছেন। এরমধ্যে এক মাস তিনিই ভালো ছিলেন। 

বলেন, ‘চার মাসে একমাস ভালো ছিলাম আর তিন মাসে আমার জানডা বেরোয় গেছে ভাই। আমি এখানে থাকলে বাঁচতি পারবো নানে।’ ওই বাড়ি থেকে বের হয়ে পুলিশের কাছে যাওয়ার সুযোগ আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘না ভাই, বাইর হওয়ার কোন সুযোগ নেই। তিনটা গেটে তালা দিয়ে রাখে।’ তিনি বলেন, ‘ডাক্তারের  কাছে নিয়ে যাওয়ার কথা কলি নেই না। খালি একটা বড়ি দেয়। ডাক্তারের কাছে নিলি আমি দেহাবানে, কয়ে দিবানে, তাইতি নেয় না।’ নারী বিলাপ করতে করতে আবারো বলেন, আমাকে বাঁচান ভাই। না হলি, আমি বাংলাদেশে যাতি পারবো নানে। আমাকে নিয়ে যান। আমি বাংলাদেশে কাজ করে খাবানে। একেনে কাজ করতি পারবো নানে। আমার ঠ্যাং বেয়ে বেয়ে রক্ত পড়ছে। এ সময় নারীটি অঝোরে কান্না করতে থাকেন। একইসঙ্গে ভীতসন্ত্রস্ত বলে মনে হয় তাকে।  

জানা গেছে, ওই নারীর বাড়ি খুলনায়। গত ৩ এপ্রিল আল মিনার ওভারসিজ (আরএল নং- ১২৩৫) নামে একটি রিক্রুটিং এজেন্সির মাধ্যমে সৌদি আরব যান। তার এ দুর্দশার কথা জানিয়ে পরিবারের সদস্যরা ব্রাক মাইগ্রেশন প্রোগ্রামের সঙ্গে যোগাযোগ করে। সংস্থাটি এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়ে তাকে ফেরত আনতে গত ২৫শে জুলাই প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডে আবেদন করেন। একইসঙ্গে নারীর বর্তমান অবস্থা জানতে তার সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করে। 



image
image

রিলেটেড নিউজ

Los Angeles

০০:৪৮, সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৮

ডিসেম্বরে শুরু হচ্ছে কক্সবাজার- টেকনাফ সড়কের চার লেইনের কাজ


Los Angeles

১৭:৩৩, সেপ্টেম্বর ৫, ২০১৮

বন্ধ হয়ে যেতে পারে প্রিন্ট মিডিয়া : মতিউর রহমান


Los Angeles

২৩:৩৭, সেপ্টেম্বর ৩, ২০১৮

টেকনাফে ৩ জনকে মূমুর্ষ গলাকাটা অবস্থায় উদ্ধার : অস্ত্রসহ আটক ১


Los Angeles

২৩:১৪, আগস্ট ২৭, ২০১৮

রোহিঙ্গাদের এক বছর পার : নতুন জীবনের স্বপ্ন বুনছেন


Los Angeles

২৩:১১, আগস্ট ২৭, ২০১৮

রোহিঙ্গা শিবিরে এক বছরে ২১খুন


Los Angeles

২১:২১, আগস্ট ২৫, ২০১৮

কক্সবাজারের উখিয়ার বিভিন্ন রোহিঙ্গা ক্যাম্পে রোহিঙ্গাদের বিক্ষোভ


Los Angeles

১২:৪৪, আগস্ট ২১, ২০১৮

কোরবানির গরুর মাংস পাচ্ছে রোহিঙ্গারা


image
image
image

আরও পড়ুন

Los Angeles

০২:০৪, সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৮

সড়কজুড়ে হাট, নগরজুড়ে জট


Los Angeles

০১:২০, সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৮

বনপা সেক্রেটারী রনি’র মেয়ে রুকাইয়ার জন্মদিন উদযাপন


Los Angeles

২২:২৭, সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৮

উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দুই খুন