image

আজ, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০১৯ ইং

স্থানীয়দের কাছে আতংক হয়ে উঠছে রোহিঙ্গারা

কায়সার হামিদ মানিক, উখিয়া (কক্সবাজার) সংবাদদাতা    |    ০০:১৫, জুলাই ১৩, ২০১৯

image

ফাইল ছবি

কক্সবাজারের উখিয়া-টেকনাফে ৩২টি ক্যাম্পে আশ্রিত রোহিঙ্গারা এখন স্থানীয়দের কাছে  আতংক হয়ে উঠেছে।২০১৭ সালে মিয়ানমারের রাখাইনে জাতিগত নিধনের শিকার হয়ে পালিয়ে এসে বাংলাদেশে  আশ্রয় নেয় ৭ লাখ রোহিঙ্গা। এর আগে গত তিন দশকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে আরো প্রায় পাঁচ লাখ রোহিঙ্গা। সব মিলিয়ে ১২ লাখ রোহিঙ্গা মানবিক আশ্রয় পেয়ে তারা এখন ধীরে ধীরে স্থানীয়দের কাছে এমনকি বাংলাদেশের জন্য আতংক হয়ে উঠেছে। ইয়াবা, মানব পাচার ও রোহিঙ্গা ক্যাম্প তাদের নিয়ন্ত্রণে রাখতে উখিয়া-টেকনাফের রোহিঙ্গা শিবিরের অভ্যন্তরে একাধিক রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী গোষ্ঠী মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। আধিপত্য বিস্তারে তাদের মধ্যে বাড়ছে হামলা, সংঘর্ষের ঘটনা। চলছে অস্ত্রের মহড়াও। চলতি বছরের ৭ জুন পর্যন্ত তাদের অভ্যন্তরীণ সংঘাতে খুন হয়েছেন ৩৮ রোহিঙ্গা। বাড়ছে অপহরণ, ধর্ষণসহ নানা অপরাধও।এছাড়া বাংলাদেশে স্থায়ী হওয়া কিংবা ভিন্ন কোনো রাষ্ট্রে পাড়ি দেয়ার চেষ্টায় অনেক রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ প্রতিদিন ক্যাম্প ছাড়ার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে।

উখিয়া পালংখালী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এম গফুর উদ্দিন চৌধুরী জানান, রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে বহুমাত্রিক ঝুঁকিতে রয়েছি আমরা। মানবিক কারণে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়েছে বাংলাদেশ। কিন্তু এই মানবিকতার কারণেই এখন নানা ঝুঁকিতে পড়েছি আমরা স্থানীয়রা। দ্রুত এই সংকটের সমাধান হওয়া উচিত। রোহিঙ্গাদের মধ্যে আছে এইডস আক্রন্ত মানুষ।

বাংলাদেশে এখন কলেরা না থাকলেও রোহিঙ্গাদের মধ্যে রয়েছে সেই সমস্যাও। বন উজাড় হচ্ছে, পাহাড় কেটে ধ্বংস করছে তারা। দীর্ঘমেয়াদি অর্থনৈতিক ঝুঁকিও আছে এর সঙ্গে। আর্থসামাজিক ও রাজনৈতিক সমস্যাও প্রকট হতে পারে, বাড়তে পারে নিরাপত্তা ঝুঁকিও। সব মিলিয়ে এ সমস্যাগুলো কীভাবে মোকাবেলা করা হবে সেটা ঠিক করাই এখন আমাদের দেশের জন্যে একটা বড় চ্যালেঞ্জ।
রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন সংগ্রাম কমিটির সদস্য নুর মোহাম্মদ সিকদারও ঠিক একই সুরে বলেন, বিশ্ব বাণিজ্যের অংশ হিসেবে এনজিওরা রোহিঙ্গাদের নিয়ে কাজ করছে। এনজিও কর্তারাও বিভিন্ন অনৈতিক কাজে জড়িয়ে পড়ছেন। সম্প্রতি এনজিওর গাড়িতে করে ইয়াবা পাচারের বিষয়টি নতুন করে ভাবিয়ে তুলেছে।

রোহিঙ্গাদের নিয়ে ঝুঁকির নানা দিক বিশ্লেষণ করে তিনি আরো বলেন, রোহিঙ্গাদের মধ্যে আছে এইডস ও স্বাস্থ্যঝুঁকি, দীর্ঘমেয়াদি অর্থনৈতিক চাপ, আর্থ-সামাজিক ও রাজনৈতিক ঝুঁকি, পর্যটনে ধস নামার আশঙ্কা, নিরাপত্তা ঝুঁকি এবং পাহাড়-বনের অপূরণীয় ঝুঁকি। ক্রমেই এসব ঝুঁকির বিষয় প্রকট হতে চলেছে। রোহিঙ্গারা দেশের সর্বত্র এমনকি বিদেশেও যেতে চাইছে। ক্যাম্প ত্যাগ করে নানাভাবে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত বা জেলার চেকপোষ্টগুলোতে আটক হয়ে গত দেড় বছরে প্রায় ৫৬ হাজার রোহিঙ্গাকে ক্যাম্প ফেরত আনা হয়েছে বলে পুলিশ দাবি করছে।

স্থানীয়রা মনে করছেন, আশ্রিত রোহিঙ্গাদের আবাসন এলাকায় নিরাপত্তা বেষ্টনী না থাকায় তারা অনায়াসে ক্যাম্প থেকে যখন তখন বের হচ্ছে। এভাবে নানা উদ্দেশ্যে দেশব্যাপী ছড়িয়ে পড়ার চেষ্টা চালাচ্ছে তারা। কোনোভাবে দেশের আনাচে-কানাচে তারা ভিত গাড়তে পারলে জড়াতে পারে নানা অপরাধেও। তাছাড়া তাদের আইডেনটিটি না থাকায় অপরাধ করে সহজে আত্নগোপনে যেতে পারার সম্ভাবনা শতভাগ।

তাই দেশব্যাপী আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা সতর্ক দৃষ্টি দিয়ে তাদের নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে। রোহিঙ্গাদের নিয়ন্ত্রণে ক্যাম্প এলাকায় কাটাঁতারের সীমানা বেষ্টনী তৈরির প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছে। এটি বাস্তবায়ন হলে প্রত্যাবাসন না হওয়া পর্যন্ত তাদের সঠিকভাবে নিয়ন্ত্রণ করা যাবে বলে অভিমত প্রকাশ করেছেন উখিয়া থানার ওসি আবুল খায়ের।

আবার স্থানীয় রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন সংগ্রাম পরিষদ নেতাদের ভাষ্য, মিয়ানমারে প্রত্যাবাসন বিলম্বিত ও ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের স্থানান্তর বাধাগ্রস্থ করতে পরিকল্পিতভাবে শিবিরগুলোকে অস্থিতিশীল করে তোলা হচ্ছে। পুলিশসহ স্থানীয় একাধিক সূত্র জানায়, টেকনাফ ও উখিয়ার শিবিরে সাতটি করে সন্ত্রাসী বাহিনী আছে। এর মধ্যে টেকনাফের আব্দুল হাকিম বাহিনীর সদস্যরা মুক্তিপণ আদায়ের জন্য যখন-তখন লোকজনকে অপহরণ করে। মুক্তিপণ না পেলে হত্যা করে লাশ গুম করে। ইয়াবা, মানব পাচারে যুক্ত থাকার পাশাপাশি এ বাহিনীর সদস্যরা রোহিঙ্গা নারীদের তুলে নিয়ে ধর্ষণের ঘটনাও ঘটায়।

২০১৬ সালের ১৩ মে টেকনাফের মুছনী রোহিঙ্গা শিবিরের পাশে শালবন আনসার ক্যাম্পে হামলা চালায় হাকিম বাহিনী। এ সময় আনসার কমান্ডার আলী হোসেন তাদের গুলিতে নিহত হন। এ সময় তারা আনসারের ১১ টি আগ্নেয়াস্ত্র ও ৭ শতাধিক গুলিও লুট করে। মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের মংডু শহরের দক্ষিণ বড়ছড়ায় ছিল ডাকাত হাকিমের বাড়ি। ২০১৪ সালে রোহিঙ্গাদের পক্ষে স্বাধিকার আন্দোলনের ডাক দিয়ে আরাকান আল ইয়াকিন বাহিনী গঠন করে বিভিন্ন উগ্রবাদী গোষ্ঠীর সাথে যোগাযোগ শুরু করেন তিনি।
মাঝেমধ্যে ফেসবুকে ভিডিও বার্তায় রোহিঙ্গাদের সংগঠিত করার ডাক দেন। হাকিমের পাঁচ ভাই জাফর আলম, রফিক, নুরুল আলম, আনোয়ার ও ফরিদের নেতৃত্বে অনেক রোহিঙ্গা শিবিরের বিভিন্ন আস্তানা থেকে ইয়াবার টাকা, মুক্তিপণের টাকা, মানব পাচারের টাকা সংগ্রহ করে হাকিমের কাছে পৌঁছে দেন।

পুলিশের তথ্যমতে, চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে ৭ জুন পর্যন্ত রোহিঙ্গাদের অভ্যন্তরীণ বিরোধ ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন প্রায় ৩৮ জন রোহিঙ্গা। এর মধ্যে জানুয়ারিতে ৮ জন, ফেব্রুয়ারিতে ৬, মার্চে ১০, এপ্রিলে ৪, মে মাসে ৫ জন ও ৭ জুন পর্যন্ত ৫ জন। টেকনাফ পুলিশের ভাষ্য, ৩৮ রোহিঙ্গার মধ্যে পুলিশ ও বিজিবির সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন ২১ জন। নিহতদের অধিকাংশ ইয়াবা কারবারি ও মানব পাচারকারী। মাদকের পাশাপাশি নারীদের ওপরও নানা অত্যাচার করছে রোহিঙ্গা অপরাধীরা।

গত ২৬ মার্চ বালুখালী রোহিঙ্গা শিবিরের ই ব্লক থেকে পুলিশ আয়েশা বেগম (১৯) নামে এক তরুণীর লাশ উদ্ধার করে। ধর্ষণের পর তাকে গলাটিপে হত্যা করা হয় বলে আলামত পাওয়া যায়। এর আগে গত ৩ ফেব্রুয়ারি রাতে মুখোশধারী একদল রোহিঙ্গা উখিয়ার কুতুপালং শিবির থেকে খাদিজা বেগম নামে এক কিশোরীকে অপহরণের পর ধর্ষণ ও হত্যা করে লাশ জঙ্গলে ফেলে যায়।
সম্প্রতি বালুখালী রোহিঙ্গা শিবিরের এক ঘরে মুখোশধারী তিন যুবক ঢুকে এক কিশোরীকে অপহরণের চেষ্টা চালায়।

কক্সবাজারের শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মোহাম্মদ আবুল কালাম জানান, উখিয়া-টেকনাফের ৩৪ টি আশ্রয় শিবিরে পুরনো-নতুন মিলিয়ে নিবন্ধিত রোহিঙ্গার সংখ্যা ১১ লাখ ১৮ হাজার ৯১৩ জন। তালিকাভুক্ত প্রতিটি রোহিঙ্গা পরিবারে পর্যাপ্ত পরিমাণে জীবনধারণ পণ্য সরবরাহ করা হচ্ছে। রোহিঙ্গাদের দেয়া অনেক পণ্য তারা বাজারে বিক্রিও করে দিচ্ছে। এরপরও গোপনে বা কৌশলে ক্যাম্প ছাড়ার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে রোহিঙ্গারা। অপরাধে জড়ানোর বিষয়ে প্রত্যাবাসন কমিশনার বলেন, যেসব রোহিঙ্গা শিবিরে অপরাধ বেড়েছে সেখানে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর টহলও বাড়ানো হয়েছে। বাড়ানো হয়েছে গোয়েন্দা নজরদারিও।



image
image

রিলেটেড নিউজ

Los Angeles

০০:২৮, জুলাই ১১, ২০১৯

রোহিঙ্গারা বাংলাদেশের জন্য বড় “বোঝা” : বান কি মুন


Los Angeles

১৮:৫১, জুলাই ৭, ২০১৯

রোহিঙ্গাদের অবশ্যই মিয়ানমারে ফিরিয়ে নিতে হবে : উখিয়ায় মালয়েশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী


Los Angeles

২৩:৩৩, জুন ২৫, ২০১৯

বান্দরবানের রোয়াংছড়িতে (জেএসএস) কর্মীকে গুলি করে হত্যা


Los Angeles

০০:৪৭, জুন ২০, ২০১৯

দর্শনার্থীদের কাছে আহসান মন্জিল আর্কষণীয় করতে নানা পদক্ষেপ 


Los Angeles

০০:১৮, জুন ২০, ২০১৯

অনিশ্চয়তার পথে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন


Los Angeles

০০:৩২, মে ২৯, ২০১৯

ত্রাণ বিক্রি করে দিচ্ছে রোহিঙ্গারা


image
image
image

আরও পড়ুন

Los Angeles

১২:৪৫, জুলাই ২৪, ২০১৯

টেকনাফ সীমান্তে গুলাগুলি : নিহত ২


Los Angeles

১২:২৩, জুলাই ২৪, ২০১৯

ছেলেধরা গুজবে সচেতনতা বাড়াতে কর্ণফুলীতে পুলিশের মাইকিং


Los Angeles

১২:১৪, জুলাই ২৪, ২০১৯

ছেলে ধরা গুজব বন্ধে দোহাজারী তদন্ত কেন্দ্র পুলিশের মাইকিং