image

আজ, বুধবার, ৩ জুন ২০২০ ইং

শঙ্খ নদীর ভাঙনে পাল্টে যেতে বসেছে দোহাজারী পৌরসভার মানচিত্র

মোঃ কামরুল ইসলাম মোস্তফা, চন্দনাইশ সংবাদদাতা    |    ২০:২১, জুলাই ২৫, ২০১৯

image

চট্টগ্রামের চন্দনাইশ উপজেলার দোহাজারী পৌরসভায় খরস্রোতা শঙ্খ নদীর ভাঙনে বিলীন হচ্ছে শঙ্খচরের বিস্তীর্ণ অঞ্চল। প্রবল স্রোতের তোড়ে ভাঙনের তীব্রতায় ইতিমধ্যে কয়েক শত একর ফসলি জমি নদীতে বিলীন হয়ে গেছে। নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে প্রায় পঞ্চাশটির মত বসত ঘর। ভাঙন আতঙ্কে রয়েছেন নদী তীরবর্তী পরিবারগুলো।

শুষ্ক মৌসুমে পায়ে হেঁটে ওপারে যেতে পারলেও বর্ষা এলেই প্রমত্তা রূপ ধারণ করে শঙ্খ নদী। তখন ভাঙন তীব্র হয়। 'নদীর এপার ভাঙ্গে ওপার গড়ে, এইতো নদীর খেলা....।' নদীর ভাঙ্গা গড়া আর ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের দুঃখ দেখে কোন একজন শিল্পী এ গানটি গেয়েছিলেন। আগে শঙ্খ নদীর ভাঙনে দক্ষিণ পাড়ের মানুষ ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ায় তারা আতঙ্কে থাকতো। স্থানীয় সাংসদ মোঃ নজরুল ইসলাম চৌধুরীর ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় দক্ষিণ পাড়ে ব্লক বসিয়ে তীর সংরক্ষণ বাধ দেয়া হয়েছে। ব্লক বসানোর ফলে দক্ষিণ পাড়ের মানুষ আতঙ্কমুক্ত হলেও নতুন করে ভাঙন শুরু হয়েছে উত্তর পাড়ে।

সরেজমিন পরিদর্শনে দেখা যায়, অব্যাহত নদী ভাঙনের কারনে দোহাজারী রেলওয়ে মাঠ সংলগ্ন এলাকায় শঙ্খনদীর উপর নির্মাণাধীন রেলসেতু থেকে লালুটিয়া পর্যন্ত শঙ্খচরের হাজার হাজার একর ফসলের মাঠ এখন হুমকির মুখে।

নির্মাণাধীন রেলসেতুর পূর্ব পাশে  তীব্র ভাঙনের কারনে মরহুম মিয়া হোসেনের বাড়ি, আবুল হোসেনের বাড়ি, আবুল কাশেমের বাড়ি, জামাল হোসেনের বাড়ী সহ প্রায় ৫০টি বসত ঘর শঙ্খ নদী গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন ক্ষতবগ্রস্থরা। আরো ৫০ টির মত বসত ঘর নদী গর্ভে  বিলীন হওয়ার আশঙ্কা করছেন তারা। 

শঙ্খ নদীর ভাঙনের ফলে দোহাজারী পৌরসভার মানচিত্র পাল্টে যেতে বসেছে। ইতিমধ্যে চাগাচর ১নং ওয়ার্ডের নতুন পাড়া এলাকা দোহাজারীর মূল ভূখন্ড থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। ওই এলাকায় যেতে হলে নৌকা ছাড়া অন্য কোন যানবাহনে যাওয়া সম্ভব নয়। 

রেলসেতু সংলগ্ন এলাকার মোঃ আলী ও গ্রাম ডাক্তার নার্গিস আক্তার বলেন, ''গত বছর আমাদের ১০ টি ভাড়া ঘর নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে। এবছর বর্ষায় এখন পর্যন্ত ১৩ টি ভাড়া ঘর নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। আরো ১০টির মত ভাড়াঘর নদীগর্ভে বিলীন হওয়ার মুখে। জোয়ার হলেই ভাঙন আতঙ্কে থাকি।"

দোহাজারী ৮নং ওয়ার্ড আ.লীগ সাধারণ সম্পাদক হারুন-অর-রশিদ বলেন, ''চলতি বর্ষা মৌসুমে শঙ্খ নদী তীরবর্তী প্রায় দুই কিলোমিটার এলাকা নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। শঙ্খ নদীর প্রবল স্রোতের তোড়ে ভাঙন তীব্রতর হওয়ায় দক্ষিণ চট্টগ্রামের সবজি ভান্ডারখ্যাত শঙ্খচর বিলীন হওয়ার সম্মূখীন।"

এ ব্যাপারে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে পানি উন্নয়ন বোর্ডের চন্দনাইশ উপজেলা কার্য্য সহকারী মোদাচ্ছের হোসেন বলেন, "শঙ্খনদীর ভাঙন কবলিত ওই এলাকা পরিদর্শন করে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট ইতিমধ্যে রিপোর্ট দিয়েছি। তীর সংরক্ষণের জন্য এখনো কোন বরাদ্দ দেয়া হয়নি। বরাদ্দ পেলে ভাঙন রোধে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।"



image
image

রিলেটেড নিউজ

Los Angeles

১৭:৫৬, মে ১৪, ২০২০

অভিনব কৌশলের কাছে ধরাশায়ী কেপিজেড’র বহু চাকরী প্রত্যাশাী


Los Angeles

২৩:১০, মে ১২, ২০২০

কর্ণফুলীতে করোনা ও এনজিও দুই চাপে দিশেহারা অসহায় ঋণ গ্রহীতারা


Los Angeles

১৬:৪৬, মে ৭, ২০২০

সারাদেশেই বাড়তি কদর বাঁশখালীর রসালো লিচু’র : বাম্পার ফলনে চাষীর মুখে হাসির ঝিলিক


Los Angeles

২২:৫৬, মে ৬, ২০২০

বাঙ্গির বাম্পার ফলনেও মলিন মুখ বাঁশখালীর চাষীদের


Los Angeles

২১:৫২, মে ৫, ২০২০

কক্সবাজারে উদ্ধারকৃত বিরল প্রজাতির 'বাংলা লজ্জাবতী বানর'র ঠিকানা সাফারি পার্কে 


Los Angeles

২০:৪৭, মে ৪, ২০২০

লোহাগাড়ায় ২০ বছর ধরে পরিত্যক্ত কমিউনিটি ক্লিনিক ভবন


image
image