image

আজ, শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০ ইং

করোনা চিকিৎসায় চট্টগ্রামে এখন সংকট নেই : ভূমিমন্ত্রী

প্রতিবেদক    |    ১৯:১৮, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২০

image

চট্টগ্রামে এখন করোনা চিকিৎসায় কোন ধরণের সংকট নেই। সরকারের আন্তরিকতা এবং চট্টগ্রামবাসীর সহযোগিতায় এ দূর্য়োগ সফলতার সাথেই মোকাবেল করেছে চট্টগ্রাম। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে করোনা চিকিৎসায় নেয়া হয়েছে তরিৎ ব্যবস্থা। ফলে দেশ এখন স্বাভাবিতার দিকে ধাবিত হচ্ছে বলে দাবী করেছেন ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী।

বৃহস্পতিবার ( ১৭ সেপ্টেম্বর) বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালে লন্ডন থেকে জুম এপের মাধ্যমে ‘চমাশিহা জাবেদ শরফুদ্দিন কোভিড-১৯ আরটি পিসিআর ল্যাব’ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী আরও বলেন, চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল কোভিড-১৯ মোকাবেলায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। চিকিৎসা সেবাদানে মা ও শিশু হাসপাতালের অবদান অগ্রগণ্য। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরেই মা ও শিশু হাসপাতাল কোভিড রোগীদের পাশে দাঁড়িয়েছে। মানুষের করোনাকালীন সেবা দিয়ে তারা দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। আজ পিসিআর ল্যাব স্থাপন করে মা ও শিশু হাসপাতাল চিকিৎসা সেবা দানে আরো এক ধাপ এগিয়ে গেল। পিসিআর ল্যাবের শতভাগ সেবা চট্টগ্রামবাসী অবশ্যই পাবে- এ বিষয়টা নিশ্চিত করতে হবে।

পিসিআর ল্যাব উদ্বোধন অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম বিভাগের স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. হাসান শাহরিয়ার কবির, জেলা সিভিল সার্জন ডা. শেখ ফজলে রাব্বিসহ পিসিআর ল্যাব বাস্তবায়ন কমিটির সকল নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন করোনা ম্যানেজমেন্ট সেলের মেম্বার সেক্রেটারি রেজাউল করিম আজাদ।

করোনা ম্যানেজমেন্ট সেলের সভাপতি ডা. মোরশেদ হোসেন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে জুমএপে যোগ দেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন এর প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সুজন, চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার ও করোনা নিয়ন্ত্রণ কমিটির আহ্বায়ক এবিএম আজাদ, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার আমেনা বেগম, চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালের করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণ বাস্তবায়ন কমিটির মেম্বারগণ উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসময় ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী বলেন, করোনা চিকিৎসার জন্য মা ও শিশু হাসপাতাল গত মার্চ মাস থেকেই কার্যকর অবদান রেখেছে। পিসিআর ল্যাব স্থাপন করে করোনা চিকিৎসার জন্য এ হাসপাতাল আরো একধাপ এগিয়ে গেলো। তাদের এ পথচলা আরো সুগম করার জন্য সহযোগিতা করবেন বলে আশ্বাস দেন মন্ত্রী । মা ও শিশু হাসপাতাল চট্টগ্রামের একটি বড় প্রতিষ্ঠান। জনসেবা কিভাবে করতে হয় তা মা ও শিশু হাসপাতালের চিকিৎসকগণ জানেন বলে মন্তব্য করেন মন্ত্রী।

করোনাকালীন মানুষের পাশে থেকে চিকিৎসা দেওয়ার সৌভাগ্য মা ও শিশু হাসপাতালের হয়েছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, মা ও শিশু হাসপাতাল করোনা চিকিৎসাসেবায় হাত না বাড়ালে চট্টগ্রামের করোনা মহামারি আরো ভয়াবহ রুপ ধারণ করতো। করোনা পরীক্ষার রির্পোট তাড়াতাড়ি দেওয়ার নির্দেশ দেন মা ও শিশু হাসপাতালের এই আজীবন দাতা সদস্য ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী। করোনাসহ সকল ক্ষেত্রে চট্টগ্রামবাসীদের দ্রুত ও উত্তম সেবা দেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

গণমাধ্যমের এক প্রশ্নের জবাবে করোনা ব্যবস্থাপনা সেলের মেম্বার সেক্রেটারি রেজাউল করিম আজাদ বলেন, পিসিআর ল্যাবে মা ও শিশু হাসপাতালের সকল ধরণের যত্রাংশ রয়েছে। সরকারের কাছে আবেদন রয়েছে, মা ও শিশু হাসপাতালের জন্য একটি এমআরআই মেশিন প্রদান করলে তাদের সেবা দানে সুবিধা পাবেন বলে মন্তব্য করেন এ চিকিৎসক।



image
image

রিলেটেড নিউজ

Los Angeles

১৬:২৯, অক্টোবর ২১, ২০২০

স্বাস্থ্যকর্মীদের সেবায় মনোযোগী হতে হবে


Los Angeles

১২:৫০, অক্টোবর ২১, ২০২০

ধর্ষকদের সামাজিকভাবেও বয়কট করতে হবে : আব্দুল কাদের


Los Angeles

১৯:৩২, অক্টোবর ২০, ২০২০

স্টিলমিল মালিকদের সাথে চসিক প্রশাসকের বৈঠক


image
image