image

কক্সবাজারে প্রতিহিংসার আগুনে পুড়েছে ঘর : দগ্ধ হয়ে শিশুসহ নিহত ২

image

স্ত্রীর দ্বিতীয় স্বামীর দেয়া প্রতিহিংসার আগুনে পুড়েছে ঘর, দগ্ধ হয়ে মরেছে নিজে শিশু মেয়ে আর স্ত্রীর তৃতীয় স্বামী। কক্সবাজার শহরের কলাতলী ১২ নং ওয়ার্ড লাইটহাউস পাড়ায় শনিবার রাত ৯ টার দিকে এই ঘটনা ঘটেছে।

কক্সবাজার ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের সিনিয়র স্টেশন অফিসার মো: ইদ্রিস দুই জনের মৃত্যুর ঘটনা নিশ্চিত করেছেন।

নিহতরা হলো, আতিকুর রহমান (৪০) ও সাদিয়া আকতার (০৬)।

জানা গেছে, শহরতলির লাইট হাউজ পাড়ার ছেনোয়ারা বেগম নামের এক নারীর তৃতীয় স্বামী আতিকুর রহমানকে নিয়ে বসবাস করে আসছিল।

কিন্তু দ্বিতীয় স্বামী আবদুল মোনাফের সাথে ছেনোয়ারার মনোমালিন্য ছিলো। এই নিয়ে বিভিন্ন সময় বাকবিতন্ডা হয়েছিল।

ছেনোয়ারা বেগমের অভিযোগ , মনোমালিন্যের জের ধরে ক্ষিপ্ত হয়ে শনিবার রাতে দ্বিতীয় স্বামী আবদুল মোনাফ এসে বাড়িতে পেট্রোল ছিটিয়ে আগুন দেয়।

এসময় ছেনেয়ােরা, তার তৃতীয় স্বামী আতিকুর রহমান ও তাদের সন্তানেরা বাড়ির ভেতরে ছিলো। বাইর থেকে দরজায় তালা দিয়ে আগুন দেয়ায় ভিতরে আটকা পড়ে যায় সবাই।

এতে অগ্নিদগ্ধ হয়ে  ঘটনাস্থলে মারা যান  মনোয়ারার তৃতীয় স্বামী আতিকুর রহমান ও ছেনোয়ারার মেয়ে সাদিয়া।

নিহত আতিকুর রহমানের বাড়ী মহেশখালী ও সাদিয়া ছেনোয়ানার দ্বিতীয় স্বামী আগুন দেয়া আবদুল মোনাফের মেয়ে।

স্থানীয়রা জানান, বসত ঘরে আগুন দিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় আবদুল মোনাফকে আশেপাশের লোকজন দেখেছেন এবং  একই দাবি করেছেন ছেনোয়ারাও।

এদিকে, খবর পেয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয় কক্সবাজার  ফায়ার সার্ভিস টিম। আগুন নেভাতে গিয়ে ফায়ার সার্ভিসের এক সদস্যও আহত হয়েছেন।

ঘটনার খবর পেয়ে কক্সবাজার সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি ফরিদ উদ্দীন খন্দকার, ওসি তদন্ত খায়রুজ্জামান, ওসি অপারেশন মো. ইয়াছিন সহ একদল পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। পুলিশ ওই দুই জনের মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেছে।

এ ব্যাপারে কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি ফরিদ উদ্দীন খন্দকার বলেন, আগুনে পুড়ে দুইজনের মৃত্যুর ঘটনা তদন্ত করা হচ্ছে।