image

কুতুবদিয়ায় কথিত অপহৃত দু‘স্কুল ছাত্রী উদ্ধার

image

কুতুবদিয়ায়  কথিত অপহরণের নামে আত্মগোপন থেকে দু‘স্কুল ছাত্রীেেক উদ্ধার করেছে পুলিশ।

সোমবার (৫ আগষ্ট) একজনকে চট্টগ্রাম পাঁচলাইশ থানা থেকে ও আরেকজনকে পটিয়া থানা থেকে উদ্ধার করা হয়।

কুতুবদিয়া থানার এসআই জয়নাল আবেদীন জানান, ২৪ জুন আলী আকবর ডেইল ফতেহ আলী সিকাদর পাড়ার গোলাম কদ্দুছ এর স্কুল পড়ূয়া মেয়ে সালমা আক্তার (১৫) ও তার চাচাতো বোন গোলাম রশিদের মেয়ে এস্তেফা বেগম(১৩) বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়।

এ ঘটনায় কুতুবদিয়া থানায় একই পাড়ার ফয়সাল রহমান রণি ও সাহাব মিয়া নামের দু‘যুবককে অপহরণের আসামী করে অভিযোগ দেয়া হয়। এটি জিডি মূলে পুলিশ তদন্ত শুরু করে। একই সাথে ভিক্টিম এস্তেফার পিতা গোলাম রশিদ বাদী হয়ে কক্সবাজার নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইবুনালে আরেকটি মামলা করেন।

পুলিশ গত ৮ জুলাই ফয়সাল ও সাহাব মিয়াকে আটক করে ৫৪ ধারায় আদালতে প্রেরণ করেন।

কুতুবদিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ দিদারুল ফেরদাউস জানান, উদ্ধারকৃত দু‘স্কুল ছাত্রী তাদের পরিবারের নানা ধরণের নির্যাতন থেকে বাঁচতে আত্মগোপনে ছিল বলে স্বীকার করেছে। প্রতিবেশিদের ফাঁসাতে অপহরণ নাটক ও ছাত্রীদ্বয়কে বিক্রি করে দিয়েছে এমন গুজবও তারা রটিয়েছে এলাকায়।

পরে পুলিশ তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে সালমাকে পটিয়া এলাকায় একটি ভাড়া বাসা থেকে এবং এস্তেফাকে চট্টগ্রাম ষোল শহর ষ্টেশন কলোনী থেকে উদ্ধার করা হয়।

মঙ্গলবার (৬ আগষ্ট) দু‘ছাত্রীকে আদালতে হাজির করে উভয়ের মা-বাবার জিম্মায় দেয়া ও একই সাথে মিথ্যা অভিযোগে আটক ২ যুবককে অব্যাহতি দানের জন্য আবেদন করেন। বিজ্ঞ আদালত তাদের অব্যাহতি প্রদান করেন বলেও জানান তিনি।