image

দোহাজারীতে বরবটি ক্ষেত নষ্ট করার 'অপরাধে' গরু পিটিয়ে হত্যা

image

চট্টগ্রামের চন্দনাইশ উপজেলার দোহাজারী পৌরসভায় বরবটি ক্ষেত নষ্ট করার অপরাধে একটি ষাঁড় গরুকে অমানবিকভাবে পিটিয়ে মেরে ফেলার অভিযোগ উঠেছে।

সোমবার (১৯ জুলাই) বিকাল ৫টার দিকে দোহাজারী পৌরসভার হাতিয়াখোলা এলাকায় লালুটিয়া ছড়ার পাশে এঘটনা ঘটে।

জানা যায়, উপজেলার দোহাজারী পৌরসভার হাতিয়াখোলা গ্রামের মৃত ফজল করিমের ছেলে বাদশা মিয়া (৬০) কোরবানির বাজারে বিক্রির জন্য পালিত একটি ষাঁড় গরু গত সোমবার (১৯ জুলাই) দুপুরে চড়ে বেরানোর জন্য হাতিয়াখোলা লালুটিয়া ছড়ার পূর্ব পাশে খালি জমিতে খুঁটি দিয়ে বেঁধে দেয়।
গরুটি ঘাস খাওয়ার সময় বিকাল ৫টার দিকে অসাবধানতাবশত রায়জোয়ারা এলাকার মৃত ছগির আহমদ এর ছেলে আব্দুল মান্নান (৫০) এর বরবটি ক্ষেতে প্রবেশ করলে জমির মালিক আব্দুল মান্নান জমির পার্শ্ববর্তী সজনে গাছের সাথে বেঁধে বাঁশের লাঠি দিয়ে নির্দয় ও নির্মমভাবে গরুটিকে বেধরক পিটাতে থাকে। গরুটির মালিক বাদশা মিয়ার ছেলে জাহিদুল ইসলাম (১০) স্থানীয় লোকজনের নিকট জানতে পেরে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখেন গরুটি মৃত পড়ে আছে।

গরুর মালিক বাদশা মিয়া জানান, "কোরবান উপলক্ষে বিক্রির জন্য পালিত গরুটি গত রবিবার একজন ক্রেতা ৯০ হাজার টাকা দাম হাঁকিয়েছে। দাম মনপুত না হওয়ায় আমি বিক্রি করি নাই। গরুটি আমার একমাত্র সম্বল ছিল। প্রকৃতপক্ষে গরুটি যদি আব্দুল মান্নানের ক্ষেত নষ্ট করেই থাকে তবে সে আমাকে জানাতে পারতো। আমি তার নষ্ট হওয়া ক্ষেতের ক্ষতিপূরণ দিতাম। কিন্তু সে একটি বোবা প্রাণীকে অমানবিকভাবে পিটিয়ে মেরে ফেললো। আমি এঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই।"

এব্যাপারে অভিযুক্ত আব্দুল মান্নানের সাথে যোগাযোগ করা হলে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে এই প্রতিবেদককে তিনি বলেন, "আমার ক্ষেতে দুই/তিনটি গরু একসাথে প্রবেশ করে ফসল নষ্ট করতে দেখে আমি গরুগুলোকে দৌড়ানি দেই। এসময় অসাবধানতাবশত লাঠির আঘাতে ওই গরুটি মারা যায়। এঘটনায় আমি অনুতপ্ত। গরু মালিককে তার ক্ষতিপূরণ দেবো।"

এব্যাপারে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে ৮নং ওয়ার্ডের সাবেক ইউ.পি সদস্য ইস্কান্দার মিয়া বলেন, "পিটিয়ে গরু মেরে ফেলার সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে একজন গ্রামপুলিশকে প্রেরণ করলে স্থানীয়দের বরাত দিয়ে সে জানায় জমি মালিক আব্দুল মান্নান গরুটিকে পিটিয়ে মেরে ফেলেছে। একটি বোবা প্রাণীকে এভাবে পিটিয়ে মেরে ফেলা দুঃখজনক।"

এ অমানবিক ঘটনার সাথে জড়িত জমি মালিক রায়জোয়ারা এলাকার মৃত ছগির আহমদের ছেলে আব্দুল মান্নানের বিরুদ্ধে চন্দনাইশ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী গরু মালিক হাতিয়াখোলা এলাকার মৃত ফজল করিমের ছেলে বাদশা মিয়া।

চন্দনাইশ থানার ডিউটি অফিসার উপপরিদর্শক (এসআই) মল্লিকা দাশ রায় অভিযোগের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ''বাদশা মিয়া নামে এক ব্যক্তি সোমবার (১৯ জুলাই) রাতে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।