image

আজ, শনিবার, ১০ এপ্রিল ২০২১ ইং

অবশেষে মিলেছে খালেদা জিয়ার লন্ডন যাওয়ার সবুজ সংকেত

ডেস্ক    |    ২৩:৪৪, মার্চ ৫, ২০২১

image

ফাইল ছবি

বিএনপি চেয়ারপার্সন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার লন্ডন যাওয়ার প্রস্তুতি চলছে। খালেদা জিয়ার সফরসঙ্গী হিসেবে যারা থাকছেন তাদের প্রয়োজনীয় কাগজপত্রও যুক্তরাজ্য দুতাবাসে পাঠানো হয়েছে। সঙ্গে যেতে পারেন খালেদার গৃহকর্মী সেই ফাতেমাও।

জানা গেছে, দেশত্যাগের বিষয়ে খালেদা জিয়ার পক্ষে গত সপ্তাহে সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে আবেদন করা হয়েছে। যদিও আবেদনটি এখনো প্রক্রিয়াধীন। সবুজ সংকেত পেয়েই সবকিছু গোছানোর কাজ চলছে। 

বিএনপির হাইকমান্ডের একটি সূত্র জানিয়েছে, খালেদা জিয়ার উন্নত চিকিৎসা প্রয়োজন। আবেদনে উন্নত চিকিৎসার বিষয়টি বলা হয়েছে। ঠিক কবে, কখন তিনি দেশত্যাগ করবেন সে বিষয়টি এখনো নিশ্চিত নয়। তবে চলতি মাসেই দেশত্যাগ করবেন ধরেই এগুচ্ছে প্রস্তুতি।

সূত্র বলছে, খালেদা জিয়ার জন্য লন্ডন প্রায় প্রস্তুত। তাকে লন্ডনে এয়ারপোর্টে কে কে রিসিভ করবেন এ সংক্রান্ত একটি খসড়া তথ্যও মিলেছে। 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির স্থায়ী কমিটির এক সদস্য বলেন, ‘উন্নত চিকিৎসার জন্য লন্ডনে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বেগম জিয়া। সরকারি সিদ্ধান্ত অনুকূলে আসার সপ্তাহখানেকের মধ্যেই যুক্তরাজ্যে যাওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে তার। বিএনপি চেয়ারপারসনের ভাই শামীম ইস্কান্দর ব্রিটিশ হাইকমিশনে তার এবং বোন খালেদা জিয়ার পাসপোর্টসহ কাগজপত্র জমা দিয়েছেন।

দুর্নীতির দুই মামলায় দণ্ডিত খালেদা জিয়া পঁচিশ মাস কারাভোগের পর গত বছরের ২৫ মার্চ জামিনে মুক্ত হন। এরপর দু’দফায় তার জামিনের মেয়াদ বাড়ানো হয়। গত বছরের ২৪ সেপ্টেম্বর মেয়াদ ফের বাড়ানো হয়। আগামী ২৬ মার্চ তার জামিনের চতুর্থ দফার মেয়াদ শেষ হবে। এর আগেই তার দেশত্যাগের সম্ভাবনা রয়েছে।

সূত্র বলছে, গত ২ মার্চ খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিতের মেয়াদ বাড়ানো এবং তার বিদেশে চিকিৎসার অনুমতি চেয়ে পরিবারের পক্ষ থেকে আবেদন করা হয়। বিএনপি চেয়ারপারসনের ভাই শামীম ইস্কান্দর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বরাবর এ আবেদন করেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল আবেদনপত্রে স্বাক্ষর করে তা সচিবের দফতরে পাঠিয়ে দেন। 

সূত্র আরও জানায়, খালেদার দণ্ড স্থগিত করে মুক্তির মেয়াদ ও শর্ত শিথিলের বিষয়ে আইন মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনার পর সিদ্ধান্ত নেয়া হতে পারে। বর্তমানে লন্ডনে খালেদা জিয়ার বড় ছেলে সাজাপ্রাপ্ত তারেক রহমান, স্ত্রী জোবাইদা রহমান, তারেকের মেয়ে জাইমা রহমান অবস্থান করছেন। সঙ্গে রয়েছেন ছোট ছেলে প্রয়াত আরাফাত রহমান কোকোর দুই মেয়ে জাহিয়া রহমান ও জাফিয়া রহমানসহ স্ত্রী শার্মিলা রহমান। লন্ডনের কিংস্টনে প্রায় পাশাপাশি দুটি বাসায় থাকেন তারা। সেখানে অবস্থান করেই সেন্ট্রাল লন্ডন হাসপাতালে চিকিৎসা গ্রহণ করার ইচ্ছে রয়েছে খালেদার।



image
image

রিলেটেড নিউজ

Los Angeles

২১:১২, মার্চ ২৬, ২০২১

হাটহাজারীতে পুলিশ-হেফাজত সংঘর্ষে নিহত-৪


image
image
image

আরও পড়ুন

Los Angeles

১৬:০২, এপ্রিল ১০, ২০২১

সীতাকুণ্ডে ইফতার সামগ্রী বিতরণে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন আহার


Los Angeles

১৫:৫৫, এপ্রিল ১০, ২০২১

উখিয়ায় অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত স্থানীয়দের মাঝে নগদ টাকা ও টিন বিতরণ